Archives

সরিষাবাড়ীতে ট্রেন্ডারে মরা জীবিত গাছ কাটার অভিযোগ ঠিকাদারের বিরুদ্ধে
জামালপুরসরিষাবাড়ী

সরিষাবাড়ীতে ট্রেন্ডারে মরা জীবিত গাছ কাটার অভিযোগ ঠিকাদারের বিরুদ্ধে

আবুল হোসেন,নিজস্ব প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে সড়ক ও জনপথের সড়কের সরকারি জীবতি গাছ কর্তন করার অভিযোগ উঠেছে। সড়ক ও জনপথের দিগপাইত-সরিষাবাড়ী-তারাকান্দি সড়কের দু’পাশে মৃত ও হেলাপড়া ঝুকিপুর্ন বাধা সৃষ্টিকারী বৃক্ষ অপসারণ কাজের দরদাতা প্রতিষ্ঠান মেসার্স মা-মনি এন্টারপ্রাইজ এর বিরুদ্ধে এ অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টম্বর) উপজেলার দিগপাইত- সরিষাবাড়ী-তারাকান্দি সড়কে এ জিবীত গাছ কর্তন করা হয়েছে। গাছ কর্তনকালে সড়কে জানজটের সৃষ্টি হয়।

সরিষাবাড়ীতে ট্রেন্ডারে মরা জীবিত গাছ কাটার অভিযোগ ঠিকাদারের বিরুদ্ধে

সড়ক ও জনপথ সূত্রে জানা গেছে,ঢাকা’র অধীন সড়ক ও জনপথ এর অপারেশন ডিভিশন(পূর্বাঞ্চল)নির্বাহী বৃক্ষ পরিপালনবিদ ২০১৯-২০ অর্থ বছরে প্যাকেজ নং-০১ দিগপাইত-সরিষাবাড়ী-তারাকান্দি সড়কের বিভিন্ন কিলোমিটার এ অবস্থিত মৃত ও সড়কে হেলেপড়া ঝুকিপুর্ন বাধা সৃষ্টিকারী বৃক্ষ অপসারণ কাজের জন্য নিলাম দরপত্র বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। যার দরপত্র বিজ্ঞপ্তি নং-০৬।

ওই কাজের টাঙ্গাইল জেলার মের্সাস মা-মনি এন্টারপ্রাইজ এর প্রোপাইটর  সোহেল রানা রিপন দরদাতা হিসেবে কার্যাদেশ পান।

ঢাকা অধীন সড়ক ও জনপথ এর অপারেশন ডিভিশন(পূর্বাঞ্চল)নির্বাহী বৃক্ষ পরিপালনবিদ (চঃ দাঃ) মীর মুকুট মোঃ আবু সাঈদ স্বক্ষরিত গত ১৩ সেপ্টেম্বর কার্যাদেশ প্রদান করেছেন।

কার্যাদেশের উল্লেখিত শর্ত না মেনে নির্ধারিত গাছ ছাড়াও অন্য মুল্যবান বৃহৎ রেইনট্রি কড়ই,শিশু,একাশি গাছ কর্তন  করে নেওয়ার অভিযোগ স্থানীয় সচেতন এলাকাবাসীর।

এ ছাড়াও মৃত গাছের সাথে নম্বর ও জীবিত গাছের দুটি গাছের একই নম্বর দেয়া গাছ কর্তন করা হয়েছে। গাছ গুলো ঠিকাদের ম্যানেজার জমির উদ্দিন,ওয়াহেদ আলী, সর্দার আশরাফ হোসেন এর নেতৃত্বে তিনটি গ্রুপে প্রায় ৫০জন শ্রমিক মিলে এ গাছ গুলো কেটে নিচ্ছে।

গাছ কর্তকারী দরদাতা গাছ কর্তকারী শ্রমিকরা গাছ কর্তন কালে উপজেলার মহাদান ইউনিয়নের করবাড়ী গ্রামের নুরুল ইসলাম(৭৫) এর বসতবাড়ীর পার্শ্বে একটি বৃহৎ  জিবীত খাড়া শিশু গাছ কর্তন কালে বসত ঘর ও আসবাবপত্র ক্ষতিগ্রস্থ সহ অল্পের জন্য বেচে যায় যমজ দুই বোন।

এ নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে উত্তেজনা দেখা দেয়।এ খবরে মহাদান ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ.কে.এম আনিছুর রহমান জুয়েল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। রাস্তার জিবীত গাছ কর্তন করায় স্থানীয় সচেতন মহলের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব উদ্দিন আহমদ জানান, সড়ক ও জনপথের রাস্তার গাছ কর্তনের বিষয়ে আমি কিছু জানিনা। এটি জামালপুর সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলীর কাজ।

এ ব্যাপারে ময়মনসিংহ বিভাগের সড়ক ও জনপথের উপ-সহকারী প্রকৌশলী পরিতোষ ঘোষ জানান, কার্যাদেশ অমান্য করে গাছ কর্তন করায় দরদাতা প্রতিষ্ঠানকে গাছ কাটা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে জামালপুর সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, কার্যাদেশ বর্হিভূত গাছ কর্তন করলে কার্যাদেশ প্রাপ্ত দরদাতা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরোও জানান সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জকে ফোন করে দিচ্ছি স্থানীয় ভাবে ব্যাবস্থা নেয়ার জন্য।

এস আর /জামালপুর লাইভ

Leave a Reply

%d bloggers like this: