সংরক্ষণাগার

মাদারগঞ্জে অপরিকল্পিত বাঁধ ভেঙে ৩০পরিবারের ভিটেমাটি নদীগর্ভে
জামালপুরমাদারগঞ্জ

মাদারগঞ্জে অপরিকল্পিত বাঁধ ভেঙে ৩০পরিবারের ভিটেমাটি নদীগর্ভে

মির্জা হুমায়ুন কবীর, নিজস্ব প্রতিনিধি : জামালপুরের মাদারগঞ্জে অপরিকল্পিত একটি বাঁধ ভেঙে অন্তত ৩০পরিবারের ভিটেমাটি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলি বাঁধের উপর কিংবা অন্যের বাড়িতে অশ্রয় নিয়ে কষ্টকর জীবনযাপন করছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আমিনুল ইসলামসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এলাকা পরিদর্শণ করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে খাদ্যসহায়তা দিয়েছেন।

জানা গেছে, ৭ বছর আগে মাদারগঞ্জ পৌরসভার চাঁদপুর-ভোলারচর বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধের দক্ষিণে যমুনার একটি শাখা নদীতে আড়াআড়িভাবে মাটি ভরাট করে পানি প্রবাহ বন্ধ করে দেয়া হয়। এরপর থেকেই প্রতিবছর বন্যার সময় ওই শাখা নদী দিয়ে পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হওয়ায় বাঁধের বিভিন্ন অংশ বন্যার পানির চাপে ভেঙ্গে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার রাতে বাঁধের নাদাগাড়ী অংশে পানির তোড়ে ভেঙ্গে যায়। বাঁধ ভাঙ্গার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই অন্তত ৩০টি বসত বাড়ির ভিটে পানির তোড়ে ভেঙ্গে যায়। ঘটনার আকস্মিকতায় অনেকেই বসত ঘর ও আসবাবপত্র সরিয়ে নেওয়ার সুযোগ না পাওয়ায় সেগুলো পানিতে ভেসে যায়।

নাদাগাড়ী গ্রামের কৃষক শাহা আলী ও জাহাঙ্গীর আলমসহ ক্ষতিগ্রস্ত লোকজন জানান, অপরিকল্পিতভাবে যমুনার শাখা নদীর গতিপথ বন্ধ করে দেওয়ায় প্রতিবছর বাঁধটির বিভিন্ন অংশে ভেঙে লোকজন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তারা শাখা নদীটি অবমুক্ত করে ওই স্থানে পাকা ব্রিজ নির্মাণ করে প্রতিবছর লোকজনের ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করার দাবি জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে বালিজুড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক জানান, ইতিপূর্ব পানি উন্নয়ন বোর্ডের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কয়েকবার ওই শাখা নদীর গতিপথ অবমুক্ত করে ব্রিজ নির্মাণের জন্য পরিদর্শণ করেছন। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন কাজ শুরু করা হয়নি। তিনি বিষয়টি নিয়ে সাবেক বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপিসহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সাথেও কথা বলেছেন। তারা ওই স্থানে ব্রিজ নির্মাণ হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

এস আর /জামালপুর লাইভ

মন্তব্য করুন