Archives

জামালপুরসরিষাবাড়ী

সরিষাবাড়ীতে চা চাষে জমি নির্বাচন নিয়ে মতবিনিময় সভা

আবুল হোসেন,নিজস্ব প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলায় চা চাষের জমি নির্বাচন,সম্ভাব্যতা ও উপযোগীতা বিষয়ে বাংলাদেশ চা বোর্ড ও উপজেলা প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (২৫অক্টোবর) বিকেলে সরিষাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের সভাকক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব উদ্দিন আহমদ সভাপতিত্ব করেন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন পাঠান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউটের উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ শামীম আল মামুন, বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা নাঈম মোস্তফা আলী, উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমূখসহ এলাকার গণ্যমান্যবর্গ ও বিভিন্ন ইউনিয়নের চা চাষে আগ্রহী চাষীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় চা বোর্ডের বিশেষজ্ঞগণ ক্ষুদ্র পরিসরে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে স্বল্প খরচে, সহজ উপায়ে কিভাবে লাভজনকভাবে চা আবাদ ও গাছের পরিচর্যা করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করেন। এ অঞ্চলে ভবিষ্যতে চা চাষ বৃদ্ধির বিষয়ে স্থানীয় উদ্যোক্তা ও আগ্রহী চাষিদের এগিয়ে আসার আহবান জানান তারা।

চা বোর্ড সূত্রে জানা যায়, বৃহত্তর ময়মনসিংহের ৫টি জেলার ১৫টি উপজেলায় মোট ১৩হাজার ৬৪৫একর জমিতে চা আবাদ সম্ভব। তারা আরও জানান, এসব জমি চা আবাদের আওতায় আনা হলে এ অঞ্চল থেকে ১৬.৩৭মিলিয়ন কেজি চা উৎপন্ন হবে। চা বোর্ড সূত্রে আরও জানা যায়, কৃষি নির্ভর জামালপুর জেলায় অর্থকরী ফসল চা চাষ সম্প্রসারণে সার্বিক সহযোগিতা আগামীতেও চলমান খাকবে এবং চা চাষের মাধ্যমে এ অঞ্চলের অনাবাদি জমি চা আষের আওতায় আসবে। ফলে এলাকায় নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি ও দারিদ্র বিমোচনের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে নতুন দিগন্তের সূচনা করবে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা যায়, ক্ষুদ্র পরিসরে চা চাষ সম্প্রসারণে চাষিদের উদ্বুদ্ধকরণ ও কারিগরি সহযোগিতা প্রদানের লক্ষে বাংলাদেশ চা বোর্ডের আওতাধীন বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউটের উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ শামীম আল মামুন, বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা নাঈম মোস্তফা আলীর সমন্বয়ে গঠিত একটি বিশেষজ্ঞ টিম গত ২৪ ও ২৫অক্টোবর সরিষাবাড়ী উপজেলার চা চাষযোগ্য জমি নির্বাচনে বিভিন্ন ইউনিয়ন সরেজমিনে পরিদর্শন ও চা চাষের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য মৃত্তিকার নমুনা সংগ্রহ ও প্রয়োজনীয় উপাত্ত সংগ্রহ করেন।

এর আগে উপজেলা চত্বরে উচ্চ ফলনশীল বিটি-২ জাতের চারা রোপন করে উপজেলার সমতল ভূমিতে চা আবাদ সম্প্রসারণের নতুন সম্ভাবনার পথ সম্প্রসারিত করার লক্ষে চা আবাদের সূচনা করেন বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউটের উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তাগণ।

এস আর /জামালপুর লাইভ

বার্তা সম্পাদক
%d bloggers like this: