Archives

খেলাধুলা

লাথামের শতকে সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

লাথামের শতকে সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

নিউজ ডেস্ক: নিউজিল্যান্ডের মাটিতে অধরা জয় ছিনিয়ে মাঠে নেমেছিল টাইগাররা। সঙ্গে চেয়েছিল সিরিজ বাঁচাতে। ডানেডিনের ব্যাটিং ধসের দুঃস্বপ্ন ভুলে ক্রাইস্টচার্চে রানের দেখাও পেয়ে ছিল ২৭১ রানের লড়াকু পুজিও গড়েছিল। কিন্তু বোলাররা জ্বলে উঠতে না পারায় জয় অধরাই রয়ে গেল। সঙ্গে হাতছাড়া হলো ওয়ানডে সিরিজও।

টম লাথামের হার না মানা সেঞ্চুরিতে ৫ উইকেটে জিতে ওয়ানডে সিরিজ নিজেদের করে নিল নিউজিল্যান্ড। দুরন্ত এ জয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ২-০ ব্যবধানে নিশ্চিত করল ব্ল্যাক ক্যাপস শিবির।

দুর্বার এক স্লোয়ারে মার্টিন গাপটিলকে ফিরিয়ে ব্রেকথ্রু এনে দিয়ে ছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। নিউজিল্যান্ডের স্কোর তখন ২৮। দলীয় স্কোর ৪৩ রান ছুঁতেই এবার আঘাত হানেন মেহেদি হাসান। ১০ রানের ব্যবধানে ফেলেন হেনরি নিকোলস ও উইল ইয়াং’র উইকেট।

টাইগাদের বোলিং ঝলকানি বলতে এতোটুকুই। তার পরই চলতে থাকে কিউইদের ব্যাটিং ঝলক। ওয়ানডাউনে নামা ডেভন কনওয়ে ৭২ রানের ইনিংস খেলে পড়েন তামিম ইকবালের রানআউটের ফাঁদে। তার ৯৩ বলের অর্ধ-শতকের ইনিংসে ছিল ৭টি বাউন্ডারি। ১১৩ রানের পার্টনারশিপটা ভাঙলেও বিস্ফোরক ব্যাটিং চালিয়ে যান ক্যাপ্টেন লাথাম। ১০৮ বলে ১০ চারে খেলেন ১১০ রানের অধিনায়কোচিত অসাধারণ এক ক্রিকেটীয় ইনিংস।

লাথাম-ডেভনের ব্যাটিং হাসিতে ৪৮.২ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্য টপকে ২৭৫ রান তুলে ফেলে কিউইরা।

সেঞ্চুরি হাতছানি দিয়েছিল তামিম ইকবালকেও। সম্ভাবনা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত শতক পাননি টাইগার ক্যাপ্টেন। উঁকি দিয়েও ক্যারিয়ারের ১৪তম ওয়ানডে ধরা দেয়নি। ক্যারিয়ারের ৫০তম হাফ-সেঞ্চুরিতেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তামিমকে। তার অর্ধ-শতক পেয়েছেন মোহাম্মদ মিঠুনও। দুজনের জোড়া হাফ-সেঞ্চুরিতে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের সামনে ২৭২ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দেয় টাইগাররা।

ক্রাইস্টচার্চের হাগলি ওভালে টস হেরে শুরুতে ব্যাট হাতে নেমে তামিম ১১ চারে ১০৮ বলে ৭৮ রান সাজঘরে ফিরলেও ৭৩ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন মিঠুন। দলীয় স্কোরে মুশফিকুর রহিম ৩৪ ও সৌম্য সরকার ৩২ রান যোগ করেন।

সূত্র: বার্তা২৪.কম

এসএসআর/জামালপুর লাইভ

বার্তা সম্পাদক
%d bloggers like this: