Archives

বিশ্ব সংবাদ

পশ্চিমবঙ্গের ভোটের উত্তেজনা বাড়ছে

পশ্চিমবঙ্গের ভোটের উত্তেজনা

নিউজ ডেস্ক: নপশ্চিমবঙ্গে আট দফায় বিধান সভা নির্বাচনের দ্বিতীয় দফা ভোটের সময় পরিস্থিতি রক্তাক্ত ও অগ্নিগর্ভ হয় বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) সারা দিনমান। নন্দীগ্রামে খোদ মুখ্যমন্ত্রী, তৃণমূলের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিজেপির শুভেন্দু অধিকারীর সমর্থকদের মধ্যে রক্তারক্তি ও তুলকালাম দ্বন্দ্ব ছড়িয়ে পড়ে। অনেক জায়গায় শক্ত লড়াই করছে বাম-কংগ্রেস-সংযুক্ত মোর্চা। এতে যে উতপ্ত পরিস্থিতির উদ্ভব হচ্ছে, তা কেন্দ্রীয় বাহিনী নামিয়েও সামাল দেওয়া যায়নি। সহিংস পরিস্থিতির মাধ্যমে প্রতিদিনই পশ্চিমবঙ্গের ভোটে উত্তেজনা বাড়ছে।

ননন্দীগ্রাম ছাড়াও আরো অনেক নির্বাচনী এলাকা থেকে সংঘর্ষ ও উত্তেজনার খবর পাওয়া গেছে। ভাঙচুর, মারপিট আর খুন-জখমের ঘটনাও ঘটছে। ফলে ৩৯৪ আসনের বিধান সভা নির্বাচনের পুরো প্রক্রিয়াটিই অতি স্পর্শকাতর ও উত্তেজক হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বিধান সভা নির্বাচনের পর, দশ বছরের মমতা-শাসনই চলবে, নাকি বিজেপি আসবে ক্ষমতায়, তা জানা যাবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘পরিবর্তন’-এর দশ বছর পরে এবার বিজেপির ‘আসল পরিবর্তন’ আসবে? নাকি, দু’শো আসন জেতার রণহুঙ্কার দিয়েও শেষ পর্যন্ত বিজেপি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে হার মানবে? এসব প্রশ্নেরও উত্তর পাওয়া যাবে ভোটের শেষে।

তবে এসব উত্তর পেতে আরো এক মাস অপেক্ষা করতে হবে। কারণ, নির্বাচনী তফসিল অনুযায়ী ২ মে আট দফায় অনুষ্ঠিত নির্বাচনের ফলাফল ঘোষিত হবে। আর তখনই জানা যাবে, পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করবে কে, সে তথ্য। একই সঙ্গে এক মাস পরের নির্বাচনী ফলাফল প্রদেশের পাশাপাশি জাতীয় রাজনীতির ভবিষ্যতের গতিপথও ঠিক করে দেবে।

কারণ, মমতার সঙ্গে টক্কর দিয়ে মোদী জিতলে পোয়াবারো, হারলে মুখ পুড়বে, এমনটিই বিশ্লেষকদের ধারণা। আর সে কারণেই পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলের দিকে শুধু বাংলার নয়, গোটা ভারতের নজর। তবে, নির্বাচন প্রক্রিয়া যেভাবে সহিংস, রক্তাক্ত হচ্ছে এবং আহত-নিহতের মাধ্যমে সংখ্যালঘু ও নিপীড়িত-দলিত নাগরিকদের মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে, তাতে ভারতের গণতন্ত্রের যাত্রাপথ প্রশ্নবিদ্ধ ও চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন। বিশেষত, ভারতের শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের রাজনৈতিক ঐতিহ্যে সাম্প্রদায়িকতা ও উগ্রতার বিপদ সকল ধর্মনিরপেক্ষ ও উদারপন্থী শক্তির সামনে মূর্তিমান চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সূত্র: বার্তা২৪.কম

এসএসআর/জামালপুর লাইভ

বার্তা সম্পাদক
%d bloggers like this: