জীবনের জন্য মৃত্যু ? নাকি মৃত্যুর জন্যেই জীবন।

অটো রিকশা যোগে ময়মনসিংহ শহরের টাউন হল মোড় অভিমুখে যাচ্ছিলাম।গন্তব্যের মাঝপথে আমাদের গাড়ীতে  বয়োবৃদ্ধ একজন  যাত্রী উঠলেন।এরপর তিনি আমার পাশের সীটের একজন যাত্রীকে লক্ষ্য করে বললেন”মুরুব্বি একটু চেপে বসুন”আবার এক ষ্টেশন পেরিয়েই লোকটি গাড়ী থেকে নেমে যাওয়ার সময় আবারো  বললেন “চাচা আমাকে যেতে দিন “।

ঘটনাটি স্বাভাবিক হলেও এর একটি অন্তর নিহিত কারণ রয়েছে বলে আমার ধারণা। কেননা আগত যাত্রীটি ছিলেন বয়োবৃদ্ধ, সাদা ধব ধবে  পাকা চুল-দাড়ি, মুখে দাত নেই, শরীরের চামড়ায় বার্ধক্যের ঢেউ,স্বাভাবিক গতিতে হাটা চড়া করার সামর্থও  কম, বয়সেও যাকে মুরুব্বি বলে সম্বোধন করলেন তার চেয়ে অনেক বেশি এটা সন্দেহাতীত।

অপর দিকে যে লোকটিকে প্রথমে মুরুব্বি এবং পরে চাচা বলে সম্বোধন করলেন তার চেহারায় তারুণ্যের নিদর্শন না থাকলেও বার্ধক্যের কোন ছাপ নেই।নিশ্চিত কম বয়সের একজন মানুষকে কেন মুরুব্বি এবং চাচা বলে সম্বোধন করবেন? তার কারণ হয়তো আমাদের জানা নেই  কিন্তু ধারনা গত ভাবে বলতেও দ্বিধা নেই যে,লোকটা নিজের বার্ধক্য সম্পর্কে  উদাসীনতার পরিচয় দিচ্ছেন।আর এ উদাসীনতার কারণ হলো নিজের বয়স লুকিয়ে রেখে দুনিয়ায় আরো বেশী দিন বেঁচে থাকার বাসনা ও প্রকৃতির চিরন্তন রেওয়াজকে সুকৌশলে এড়িয়ে চলার ফন্দি।এধরনের ফন্দিবাজ মানুষ আলোচিত ব্যক্তিটি একা নহেন বরং এটিই আমাদের প্রচলিত ট্রেডিশন বা সমাজের অধিকাংশ মানুষের  মনোবৃত্তি।কারণ বয়সে কারো বড় হতে মানুষের মন সহজে সম্মতি দেয়না ,যত কম বয়সী হওয়া যায়, তত বেশী দিন দুনিয়ায় বেচে থাকা যাবে এটাই সাধারণ বিশ্বাস।ফলে এধরণের অনেক উদাহরণ বা  ঘটনা মানব সমাজে প্রচলিত আছে বা কম বেশী সবারই জানা আছে।

শৃষ্টিগত ভাবে মানুষ খুবই দুর্বল,  পরম আল্লাহ তায়ালা সীমিত বা   নির্ধারিত হায়াত দিয়ে  তাকে দুনিয়ায় প্রেরণ করেছেন ,আর মানুষের হায়াত বা জীবনের একটি ধারাবাহিক পুঞ্জিকাও রয়েছে, আর তাহলো  শৈশব, কৈশোর, যৌবন,পৌড়ত্ব ও বার্ধক্য।জীবনের বর্নিত ধাপ সমুহের চলন,বলন ও আচরণের ভিন্ন ভিন্ন রীতি-নীতি আছে বা থাকতেই হবে যা ইচ্ছাকৃত ভাবে  কেও পরিবর্তন করতে পারেনা বা পারবেনা।কোনো ব্যক্তি যদি বৃদ্ধ বয়সে যুবক সুলভ  আচরণ দেখায় তবে সেটা আল্লাহ তায়ালার বিধানের প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শনেরই সামিল বা চাতুরী পনার মাধ্যমে সত্য গোপনের বহিপ্রকাশও বটে। জীবন ও মরন দুটি পৃথক সত্বা হলেও মৃত্যুর বিপরীতই হলো  জীবন। জীবনের জন্য মৃত্যু অবশ্যম্ভাবী এবং প্রত্যেক আত্মার জন্যই মৃত্যু অবধারিত।   মৃত্যুর জন্যই মহান শৃষ্টি কর্ত্তা মানুষকে জীবন দান করেছেন।

পৃথিবীতে মানুষের সকল ধরনের রোগ বালাই বা বিপদ আপদ থেকে কোন না কোন উপায়ে মুক্তি পাওয়ার পথ আছে কিন্তু মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার কোন উপায় কারো নেই।সবারই ধ্বংস বা মৃত্যু অবধারিত। পবিত্র কুরআনে ইরশাদ হয়েছে “পৃথিবীর সবকিছুই ধ্বংসশীল, একমাত্র মহিমাময়, মহানুভব পালন কর্তার সত্তা ব্যাতিত ” (সুরা আররহমান,আয়াত -২৬) সুতারাং একমাত্র মহান স্রষ্টা আল্লাহ তায়ালার সত্তাই চিরন্তন ও চিরঞ্জীব আর সবই ক্ষণস্থায়ী।

জীবন তরী বা জীবনের  প্রতিটি ঘাটের সাথে  বয়সের সামনজস্যপুর্ন সম্পর্ক আছে,  তাই ছোট বড় সকলেরই উচিৎ বয়সের সাথে ভারসাম্য রেখে   নিয়ম কানুন, রীতি নিতি ও আচার -আচরন প্রকাশ করা, কেননা আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআনে ইরশাদ করেছেন “যিনি শৃষ্টি করেছেন মৃত্যু ও জীবন, তোমাদিগকে পরীক্ষা করার জন্য”( সুরা মুলক, আয়াত- ২)।বর্নিত আয়াতে,মানুষের জীবনের আগেই মরন শৃষ্টি করার ঘোষনা বা প্রমাণ রয়েছে। অতএবঃমৃত্যুর জন্যই জীবন শৃষ্টি করা হয়েছে।মৃত্যুর ঘোষণা বা মৃত্যুর ভয় সামনে রেখে জীবন পরিচালনার নিমিত্তেই  আল্লাহ তায়ালা আগে মৃত্যু শৃষ্টি এবং পরে জীবন শৃষ্টি করেছেন। যেহেতু মৃত্যুই আগে শৃষ্টি করা হয়েছে তাই জীবনের সবচেয়ে বড় কঠিন বিষয় হলো “মৃত্যু”। জীবন তো নশ্বর আর মৃত্যু হলো অবিনশ্বর, জীবন নকল আর মৃত্যুই সত্য ও আসল।জীবনকে কেউ ইচ্ছে করলেই প্রলম্বিত বা পরিবর্তন করার যেমন এখতিয়ার রাখেনা তেমনি যার যখন যেভাবে মৃত্যু নির্ধারণ করা আছে তা থেকে এক চুলও এদিক সেদিক করতে পারবেনা বরং  নির্ধারিত সময়েই (যা এক মাত্র আল্লাহ তায়ালাই ভাল জানেন)প্রত্যেক মানুষকে দুনিয়ার মায়া ত্যাগ করে বাধ্যতা মুলক ভাবে মৃত্যুর সাথে আলিঙ্গন করতে হবে।পবিত্র কুরআনের   অন্য আয়াতে ইরশাদ হচ্ছে”যখন তাদের সময় আসবে তখন তারা মুহূর্ত কাল বিলম্বও করতে পারবেনা এবং ত্বরাও করতে পারবেনা”(সুরা আরাফ-৩৪)।

অতএবঃমনে মনে নিজের বয়স কম ভেবে  আরো সুদীর্ঘ সময় বেঁচে থাকার বাসনা নিতান্ত বোকামি ছাড়া আর কিছুই নয়। বুদ্ধিমানের কাজ হলো ক্ষনিকের দুনিয়ায় যে,সময় আমি পেয়েছি,জীবনের ক্রমধারায় তার যথাযথ মুল্যায়ন করা। ভবিষ্যতের কোন নিশ্চয়তা  কারো হাতে নেই।কেননা মৃত্যুই আমাদের সর্বাধিক নিকটতম জিনিস।কখন কার মৃত্যু এসে যাবে তা কারোরই জানা নেই। অতএবঃ হায়াতের আনন্দে বা  বয়সের অজুহাতে কারোর পার পেয়ে যাবার ফুরসত নেই। অবশেষে একটি সু প্রশিদ্ধ গানের কলি স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, জীবন ও মৃত্যু নিয়ে উদাসীন ব্যক্তিরা এ থেকেও  শিক্ষা নিতে পারেন। গানটির প্রথম কলি হলো”সবাই বলে বয়স বাড়ে,আমি বলি কমেরে “। গানের কথা হলেও একথা সত্য যে,মানুষের বয়স বাড়েনা বরং তা কমে যায়।কেননা শৃষ্টিকর্ত্তা প্রত্যেক বান্দাহকে যে সময় বা হায়াত দিয়ে দুনিয়ায় পাঠিয়েছেন,মাতৃগর্ভ থেকে ভুমিষ্ট  হওয়ার পরক্ষন থেকেই তার সে হায়াত, সময় বা বয়স কমতে শুরু করে।দিন যায়, মাস যায়,বছর যায়,একদিন তার বয়স শুন্য কোটাতে এসে দাড়ায়। আর তখনই চলে আসেন মালাকুল মউত।তাই বয়স নিয়ে বড়াই  বা বাড়া বাড়ি নয়,জীবনের জন্য প্রাপ্ত ক্ষনিক সময়ের যথাযথ মুল্যায়ন করা।  যেহেতু মৃত্যুর জন্যই জীবন সেহেতু  আমাদের জীবনে সাধনা একটাই হওয়া উচিত আর তা হলো আমার মৃত্যু বা   মরন যেন শান্তিময় হয়,এটাই জীবনের অন্যতম বা এক মাত্র লক্ষ্য হওয়া উচিত। মহান আল্লাহ তায়ালা তার সকল মুমিন বান্দাকে এ যোগ্যতা অর্জনের তাওফিক দান করুন, আমিন । আল্লাহু মুস্তাআনু আলা মাতাছিফুন।

লেখক,

মুহাম্মদ হযরত আলী

শিক্ষক ও কলামিস্ট।
email: naklahazrat@gmail.com

এই বিভাগের আরো খবর

সারাদেশে সাংবাদিক নিয়োগ দিচ্ছে ‘নিউ নিউজ২৪ ডট নেট’

‘সত্য সংগ্রামে নতুন পথ’ শ্লোগানকে ধারন করে বস্তুনিষ্ঠ ও তথ্যনির্ভর সংবাদ পরিবেশন করে আসছে নিউ নিউজ টোয়েন্টিফোর ডট নেট ( https://newnews24.net )অনলাইন নিউজ পোর্টাল।...

জগতে মানুষ বড় জটিল, তবুও অনুশোচনা নয়

নজরুল ইসলাম তোফা : পত্রিকা এবং অনলাইন নিউজ পোর্টালে লেখা লেখি করতে করতে আটটা বছর কেটে গেল। সবই সাধারণ, তবে এ জগতের 'মানুষরা জটিল'।...

করোনার দাপটকালীন সময়ে ভেবে চিন্তে চলা-বলা জরুরি

বিশ্ব কাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে প্রাণঘাতী নভেল করোনা ভাইরাস (কভিট-১৯)। করোনা সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে পুরো বিশ্ব। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুযায়ী বিশ্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা...

জনপ্রিয় সংবাদ

জামালপুরে হত দরিদ্রদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ ও বৃক্ষ রোপণ

মেহেদী হাসান,নিজস্ব প্রতিবেদক : জামালপুর পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব ছানোয়ার হোসেন ছানু এর উদ্যোগে পৌরসভার নাইট রিক্সা চালক, নৈশ...

সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিদিন টিকা পাওয়ার ব্যাপারে আশার বাণী শোনানো হচ্ছে

মেহেদী হাসান,নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক মোস্তফা আল মাহমুদ বলেন, আন্তর্জাতিক টিকা কূটনীতিতে সাফল্য পাচ্ছে না বাংলাদেশ।...

সৌদির বাইরে থেকে এবারো হজে যেতে পারবেন না কেউ

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশে থেকে এবারো কেউ হজে যেতে পারেন না বলে জানিয়েছে সৌদি আরব সরকার। তবে দেশটিতে অবস্থানরত মুসলমানরাই কেবল হজ পালন করতে...

বকশীগঞ্জে ভিক্ষুক পুনর্বাসনের লক্ষ্যে ছাগল বিতরণ

রকিবুল হাসান, বকশীগঞ্জ(জামালপুর)প্রতিনিধি : জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলাকে ভিক্ষুক মুক্ত করার লক্ষ্যে ভিক্ষুক পুনর্বাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থান শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় ৯ জন ভিক্ষুকের মাঝে দুটি...