জামালপুরে কালচারাল অফিসারের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ

মেহেদী হাসান,নিজস্ব প্রতিনিধি : সংস্কৃতির বিকাশে অবদান রাখতে পারছে না জামালপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমি। নানা সংকট, অনিয়ম আর অব্যস্থাপনায় প্রতিষ্ঠানটি এখন জর্জরিত। সাংস্কৃতিক কর্মীদের অভিযোগ, আমলাতান্ত্রিক জটিলতা, কালচারাল অফিসারের নানা অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার কারণে তারা আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন শিল্পকলা একাডেমির প্রতি।

অনুসন্ধানে জানা যায়, বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটিতে কণ্ঠ সংগীতে ৬৭ জন , নৃত্যে ৩৯ জন , তবলায় ৮ জন , নাট্যকলায় ০ জন , চারুকলায় ৪৪ জন ,আবৃত্তিতে ৩২ জন, গীটারে ১৩ জন। এই ৭ টি বিভাগে মোট ২০৩ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। তবে নাট্যকলা বিভাগে প্রশিক্ষক থাকলেও নেই কোন শিক্ষার্থী।

সংস্কৃতি কর্মীদের অভিযোগ, কালচারাল অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন অতিরিক্ত দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই নানা অনিয়ম-অব্যস্থাপনা আর অদক্ষ লোকদের দ্বারা পরিচালিত হয়ে আসছে এই প্রতিষ্ঠানটি । তাদের অভিযোগ, শিল্পকলা একাডেমি একটি গোষ্ঠী দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হওয়ায় এবং জেলার অন্যান্য সাংস্কৃতিক দলের কর্মীদের সমান অংশগ্রহণ না থাকায় প্রতিষ্ঠানটি জেলার সংস্কৃতির অগ্রযাত্রায় তেমন কোনও ভূমিকা রাখতে পারছে না।

সাংস্কৃতিক কর্মী রবিউল ইসলাম রাসেল বলেন, ‘কালচারাল অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন যোগদান করার পর থেকেই সংস্কৃতি বিকাশে জেলার শীর্ষ এই প্রতিষ্ঠানটি অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে চলছে। জেলা শিল্পকলা একাডেমির দায়িত্ব আমাদের জেলার যে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য আছে, তা জাতীয়ভাবে মানুষের সামনে তুলে ধরা। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, শিল্পকলা একাডেমি দায়সারা অনুষ্ঠান করে মাত্র।

সাংস্কৃতিক কর্মী ও আবৃত্তি প্রশিক্ষক শারমিন সারা বলেন, ‘শুরু থেকেই প্রতিষ্ঠানটি একটি বিশেষ গোষ্ঠী বা প্রতিষ্ঠানের হাতের মুঠোয় আছে। যারা আবার এই প্রতিষ্ঠানের (শিল্পকলা একাডেমির) প্রশিক্ষক। যার কারণে দুই একজন শিল্পী গড়ে উঠলেও পরে সেই প্রশিক্ষকরাই আবার তাদের প্রতিষ্ঠানে ওই শিল্পীদের নিয়ে চলে যায়।এক্ষেত্রে দেখা যায় যারাই শিল্পকলা একাডেমির শিল্পী হিসেবে অনুষ্ঠান করছে, তারাই আবার পরেরদিন আরেকটা গোষ্ঠীর শিল্পী হিসেবে অনুষ্ঠান করছে। এখানে ফারাক করা মুশকিল হয়ে যায় যে, কোন প্রতিষ্ঠানের অনুষ্ঠান এটি হলো।’

নাট্যকর্মী আল আমিন মন্ডল বলেন,‘ অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত এই কালচারাল অফিসার যোগদানের পর থেকে আজ পর্যন্ত শিল্পকলা একাডেমির নিজস্ব কোনও শিল্পী তৈরি হয়নি। আবার ভালো মানের শিল্পী থাকা সত্ত্বেও তারা সুযোগ পায় না। শিল্পীদের মান বাড়ানোর জন্য যেসব কার্যক্রম করা উচিত, সে ধরনের কোনও প্রতিযোগিতা বা অনুষ্ঠান এখানে হয় না। যা হয় তার বেশির ভাগই দিবস নির্ভর।’

যন্ত্রশিল্পী ও আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক এম আর মুন্না বলেন, শিল্পকলা একাডেমিকে আমরা সাংস্কৃতিক অঙ্গনের অভিভাবক হিসেবে জানলেও দায়িত্ব পালনে আমরা অবহেলা বোধ করি। কারণ এখানে তেমনভাবে শিল্পী ও শিল্পের মূল্যায়ন হয় না। এছাড়া এখানে ভালো প্রশিক্ষকের অভাব রয়েছে এবং আরও বিভাগ খোলা দরকার। জেলা কালচারাল অফিসার সব সময় জাসাসপন্থি শিল্পীদের নিয়ে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।

শিল্পী ঐক্যজোট জামালপুর জেলা শাখার আহবায়ক মেহেদী হাসান আবু বলেন, শিল্পকলার বাইরে যেসব সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে সেগুলো সমন্বয় করে ভালোভাবে পরিচালনা করলে হয়তো সংগঠনটি এগিয়ে যেতে পারতো। এক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন ও সরকারের পৃষ্ঠপোষকতাও কামনা করেন তিনি।

প্রতিষ্ঠানটির কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণ করেন জেলা কালচারাল অফিসার। কিন্তু তার অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার কারণে শিল্পকলা একাডেমির প্রতি দিন দিন আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন স্থানীয় সাংস্কৃতিক কর্মীরা। এমনটাই মনে করেন, ‘জামালপুর থিয়েটার’ এর সাধারণ সম্পাদক ফারহান আহমেদ।

তিনি আরো বলেন, প্রতিষ্ঠানটির সমন্বয়হীনতার কারণে যেসব অনুষ্ঠান হয় তার মানও ভালো নয়, দর্শকও হয় না।

স্থানীয় শিল্পীদের অভিযোগ, যেকোনও অনুষ্ঠানে স্থানীয় শিল্পীদের সুযোগ না দিয়ে বাইরে থেকে বিশেষ করে বিভিন্ন সংগঠন থেকে শিল্পী এনে কাজ চালিয়ে নেওয়া হচ্ছে। এমনকি জেলায় জ্যেষ্ঠ শিল্পীর অভাব না থাকলেও বাচ্চাদের প্রতিযোগিতাগুলোতেও যেসব বিচারক থাকছেন সেখানেও দুর্নীতির সুস্পষ্ট ছাপ রয়েছে।

গুণীজন সম্মাননা পদক-২০১৭’র আবৃতিতে পদক পাওয়া নিয়েও বির্তক রয়েছে। গুঞ্জন রয়েছে কালচারাল অফিসার অর্থের বিনিময়ে আবৃত্তিতে অবদান রাখা জেলার শ্রেষ্ঠ ও গুণীদের বাদ দিয়ে যিনি আবৃতি সম্পর্কে কিছুই জানেন না এমন একজনকে পদক ও সম্মাননা প্রদান করেছেন। এ নিয়ে জাতীয় দৈনিক,স্থানীয়সহ বিভিন্ন পত্রপত্রিকা ও অনলাইনে সংবাদের শিরোনাম হয়েছিলো।

এদিকে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রিপন বাউল বলেন, প্রতিষ্ঠানটির নানাবিধ অসুবিধা আমরা বরাবরই লক্ষ করি। তিনি দাবি জানান, জেলা শিল্পকলা একাডেমির জন্য একজন স্থায়ী কালচারাল অফিসারের।

অভিযোগের বিষয়ে জেলা কালচারাল অফিসার মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন (অতিরিক্ত দায়িত্ব) জানান, তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।তিনি বলেন, আমি কোন গোষ্ঠী দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হই এইটা আমার পার্সোনাল বিষয়।

অন্যদিকে, আমি আগামীকালই জরুরি সভা ডেকে জেলা শিল্পকলা একাডেমির সকল কার্যক্রম নিয়মের মধ্যে ফিরিয়ে নিয়ে আসবো। শিল্প ও সংস্কৃতির বিকাশে জেলা শিল্পকলা একাডেমিকে কার্যকর করতে উদ্যোগ গ্রহণের কথা জানালেন নবাগত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক ।

এস আর/জামালপুর লাইভ

এই বিভাগের আরো খবর

মেলান্দহে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক : জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মানিক সরকার (৫০) ও জসমত আলী (৪৮) নামের দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৫ জুন)...

সরিষাবাড়ীতে ফুটবল খেলতে গিয়ে বজ্রপাতে যুবকের মৃত্যু

মেহেদী হাসান,নিজস্ব প্রতিবেদক : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে শশুর বাড়িতে এসে ফুটবল খেলতে গিয়ে বজ্রপাতে শিবলু মিয়া (২২) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৫ জুন)...

জিপিএ ৫ এর সনদপত্র পেলেন সাংবাদিকের মেয়ে রিজু

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাংবাদিক রফিকুল ইসলামের মেয়ে হৃদিকা আক্তার রিজু প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরিক্ষার জিপিএ ৫ এর সনদপত্র পেয়েছেন। মঙ্গলবার (১৫ জুন) সকালে জামালপুরের...

জনপ্রিয় সংবাদ

জিপিএ ৫ এর সনদপত্র পেলেন সাংবাদিকের মেয়ে রিজু

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাংবাদিক রফিকুল ইসলামের মেয়ে হৃদিকা আক্তার রিজু প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরিক্ষার জিপিএ ৫ এর সনদপত্র পেয়েছেন। মঙ্গলবার (১৫ জুন) সকালে জামালপুরের...

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কাব্যগ্রন্থ ‘মুজিব আমার মনের মানুষ’ বইয়ের প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত

মেহেদী হাসান, নিজস্ব প্রতিবেদক :  বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে মানুষের আগ্রহ যতই দিন যাচ্ছে ততই বাড়ছে। গল্প, উপন্যাস, কবিতা, গবেষণায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান...

বকশীগঞ্জে পাট চাষিদের নিয়ে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

রকিবুল হাসান, বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি : জামালপুরের বকশীগঞ্জে পাট অধিপ্তরের বাস্তবায়নাধীন ' উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারণ ' প্রকল্পের আওতায়...

আগামী ২৫ জুন ইসলামপুর প্রেসক্লাবের নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদক : জামালপুরের ইসলামপুর প্রেসক্লাবের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার (৯ জুন) দুপুরে প্রেসক্লাবের নিজস্ব প্যাডে এক বিজ্ঞপ্তিতে মাধ্যমে এ তথ্য জানা...